অন্যান্য

বুড়িচং উপজেলা সমিতি, ঢাকার নির্বাহী কমিটির পরিচিতি সভা

২১ নভেম্বর ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, ডেস্ক রিপোর্ট :বুড়িচং উপজেলা সমিতি, ঢাকার নির্বাহী কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ    শনিবার ২১ নভেম্বর বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে বুড়িচং উপজেলা সমিতি, ঢাকার নির্বাহী কমিটির পরিচিতি সভা হয়।

উপজেলা সমিতির দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত সভাপতি ও ডিএলএম গ্রুপের চেয়ারম্যান এম মতিন এমবিএ’র সভাপতিত্বে ও নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক পুলিশ সুপার (পিবিআই) মিজানুর রহমান শেলী’র পরিচালনায় পরিচিতি অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়ালি বক্তৃতা করেন সাবেক আইনমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এডভোকেট আবদুল মতিন খসরু এমপি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ও আপিল বিভাগের (অবসরপ্রাপ্ত) বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোস্তাফিজুর রহমান, বুড়িচং উপজেলা সমিতির সাবেক সভাপতি, নতুন কমিটি গঠনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূঁইয়া, কুমিল্লা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহবুবুর রহমান, শিক্ষানুরাগী মোশাররফ হোসেন চৌধুরী, বুড়িচং- ব্রাহ্মণপাড়া পেশাজীবি কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মাহবুবুর রহমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আবু তাহের। বক্তব্য রাখেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মো. সাজ্জাদ হোসেন, সমিতির যুগ্ম সম্পাদক ও ডিইউজে’র সাংগঠনিক সম্পাদক দিদারুল আলম দিদার, প্রচার সম্পাদক এবং কিন্ডারগার্টেন ও সমমান স্কুল রক্ষা জাতীয় কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী মোহাম্মদ আব্দুল অদুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সুপ্রীমকোর্টের এডভোকেট জাহেদুল আলম ও এডভোকেট আনোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানে নবনির্বাচিত কমিটিকে শপথ বাক্য পাঠ করান এডভোকেট একলাছ উদ্দিন ভূঁইয়া।

বক্তারা বলেন, করোনাকালে বুড়িচং উপজেলা সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে সচেতনতা কর্মসূচি, দরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ও পোস্টারিংসহ নানা সাহসী পদক্ষেপ আমাদের চোখে পড়েছে। বুড়িচং উপজেলা সমিতি একটি শক্তিশালী সামাজিক সংগঠন হিসেবে গড়ে উঠবে এটা আমাদের একান্ত প্রত্যাশা। এ সমিতি বুড়িচং উপজেলার সমৃদ্ধিতে অসামান্য অবদান রাখবে এবং ব্যাপকভাবে মানবিক কার্যক্রম পরিচালনা করবে। সমিতির সভাপতি বলেন, করোনা পরবর্তী সময়ে আমরা আরো বৃহত্তর পরিসরে বিনোদনসহ অভিষেক ও মেজবান অনুষ্ঠান আয়োজন করব। অনুষ্ঠানে করোনাসহ বিভিন্ন কারণে যারা মারা গিয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button