সারাদেশ

ঠাকুরগাঁওয়ে ফাঁকা বাড়িতে রান্না করে খেয়ে অর্থ–অলঙ্কার চুরি!

১১ মে ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম,
মোঃ আকতারুল ইসলাস আক্তার,
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ
করোনা–পরিস্থিতিতে চলছে সাধারণ ছুটি। ছুটির এ সুযোগে ভাড়া বাড়িতে তালা দিয়ে পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়িতে গেছেন এক ব্যক্তি। ফাঁকা বাড়িতে চুরি করতে ঢুকে চোরের দল ভাত–তরকারি রান্না করে খেয়ে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা ও কাঁসার তৈজসপত্র নিয়ে পালিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ঠাকুরগাঁও শহরের হলপাড়া এলাকায়।
শনিবার ওই ব্যক্তি বাড়ি ফিরে দেখেন, জিনিসপত্র চুরি হয়ে গেছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শহরের হলপাড়া এলাকার একটি বাড়ির দুটি অংশে পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকেন স্কুলশিক্ষক সুবল গোস্বামী ও প্রবীর রায়। করোনা–পরিস্থিতিতে সরকারের সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর বাড়িতে তালা মেরে পরিবার নিয়ে কয়েক দিনের জন্য গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে যান তাঁরা। দিন সাতেক পর প্রবীর রায় গতকাল রাতে বাড়ি ফিরে এসে দেখেন, ঘরের জিনিসপত্র এদিক–ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। মেঝেতে বিছানো মাদুরের ওপর রাইস কুকারে ভাত পড়ে রয়েছে। পাশে একটি বাটিতে খাবারের উচ্ছিষ্ট। ছড়িয়ে আছে কয়েকটি সিগারেটের ফিল্টার।
প্রবীর রায় জানান, চোরের দল বাসার টিনের চালের নিচের দেয়ালের অংশ ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়ে। পরে ঘর থেকে চাল আর ফ্রিজ থেকে মাছ বের করে নেয়। রাইস কুকারে ভাত ও তাতে মাছ সিদ্ধ করে মেঝেতে বসে খায় তারা। পরে সিলিং ভেঙে অন্য ঘরে গেছে। বাড়ি ফিরে ঘরে ঢুকতেই চোখে পড়ে চোরদের এই খাওয়ার নমুনা।
প্রবীর রায় আরও জানান, চোরেরা এক ভরি স্বর্ণালংকারসহ কাঁসার তৈজসপত্র ও ছয় হাজার নগদ টাকা নিয়ে গেছে।
বাড়ির মালিক সুদাম সরকার জানান, অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, বাড়ি ফাঁকা থাকায় চোরেরা ধীরেসুস্থে রান্নাবান্না করে খেয়েছে। তারপর তারা চুরির কাজে হাত দিয়েছে৷ ঘরের সুটকেস, ট্রাঙ্ক কোনো কিছুই বাদ দেয়নি। সবকিছু তছনছ করেছে তারা।
প্রতিবেশী আবদুস শহীদ বলেন, সব রকম খোঁজখবর করেই চুরি করতে ঢুকেছিল ওই চোরের দল। নয়তো পালানোর তাড়া না দেখিয়ে রান্নাবান্না করে খাওয়ার সময় তারা হাতে পেত না।
এ বিষয়ে সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মর্তুজা বলেন, বাসার মালিক একটি চুরির অভিযোগ দিয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করেছে।চুরির ঘটনার তদন্ত চলছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button