জাতীয়

ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির সাংবাদিক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত।

৪ এপ্রিল ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, ডেস্ক:এক সাংবাদিক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে তিনি বাংলাদেশে প্রথম যিনি সংবাদকর্মী হিসেবে করোনা ভাইরাসে (কভিড-১৯ পজেটিভ) আক্রান্ত হলেন। তার সংস্পর্শে আসা আরও ৪৭ জনকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) বিকেলে এতথ্য জানানা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী (সিইও) ও প্রধান সম্পাদক শামসুর রহমান।

পৌনে ৫টার দিকে তিনি ফেসবুজ পেজে লাইফে এসে জানান, অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, আমাদের একজন সহকর্মী, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন পরিবারের একজন সদস্য করোনা ভাইরাসে (কভিড-১৯) পজেটিভ আক্রান্ত। উনি শেষ ২৫ ও ২৬ মার্চ অফিসে কর্মরত ছিলেন। এরপর থেকে অসুস্থবোধ করায় তিনি হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। দুইদিন আগে তিনি রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) হট নাম্বারে করলে তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় তার করোনা ভাইরাসে (কভিড-১৯) পজেটিভ ধরা পড়ে।

তিনি জানান, আমার আইইডিসিআরের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি এবং ব্যক্তিগতভাবে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালকের সঙ্গে কথা বলেছি। উনার সংস্পর্শে যারা এসেছেন এমন ৪৭ জনের তালিকা করেছে এবং আইসোলেশনে পাঠিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, ‘গণমাধ্যমকর্মীরা সব সময় পেশাদারিত্ব পালনকালে তাদের কাজ করতে হয়। তাই আমাদের সহকর্মী যারা আছেন- বিভিন্ন টিভি চ্যানেল ও সংবাদ মাধ্যমে যারা কর্মরত আছেন তারা সরকারের নির্দেশনা মেনে আমাদের দায়িত্ব পালন করি, আর সবাই সুস্থ এবং ভালো থাকি।

ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের হেড অব নিউজ মামুন জানান, গত ৯ দিন ধরেই ওই সাংবাদিক ছুটিতে আছেন। তিনি বাদে আমাদের প্রতিষ্ঠানের অন্য কর্মীদের মাঝে করোনা ভাইরাসের কোনো রকম উপসর্গ দেখা যায়নি। তাই এই মুহূর্তেই আমরা লকডাউনে যাওয়ার কথা ভাবছি না।

তবে আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা ৪৭ জনের তালিকা আমরা করেছি এবং অলরেডি তাদেরকে সেল্ফ আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। এরপরও সম্ভাব্য সকল প্রকার সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। এমনকি কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও জানান মামুন আব্দুল্লাহ।

এদিকে আক্রান্ত ওই সাংবাদিক বর্তমানে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছেন। ইনডিপেনডেন্টের একজন সাংবাদিক বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button