এক্সক্লুসিভ

মানবিক “তাপ্তি চাকমা “

৩০ মার্চ ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, এম এইচ বিপ্লব সিকদার : করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে বিশ্ব আজ স্তব্ধ, মানবিক বিপর্যস্ত। অজানা এক সত্রু একের পর এক প্রান কেড়ে নিচ্ছে। ধনী, গড়িব, ক্ষমতাধর, জাতি, ধর্ম, বর্ন নেই ভেদাভেদ অজানা, অচেনা, অ দেখা এক প্রানঘাতী ভাইরাস বিজ্ঞান, বিজ্ঞানীর উর্ধ্বে উঠে তছনছ করে দিচ্ছে বিশ্ব কে। আক্রান্ত দেশ গুলোতে লাশের মিছিল। রোধ করা যাচ্ছেনা কিছুতেই। মানুষের আহাজারিতে বিশ্বের আকাশ ভারি হয়ে গেছে। চলতি মাসের ৮ বা ৯ তারিখে বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। শুরু হয় এর প্রতিরোধের চেষ্টা। প্রবাস ফেরত দের এই ভাইরাস আক্রান্ত ঝুঁকি বেশি। শুরু হয় প্রবাস ফেরতদের শনাক্ত করে হোমকোয়ারেন্টাইন করা। সারা দেশের মাঠ প্রশাসন কে নির্দেশনা দেওয়া হয় এই ভাইরাস প্রতিরোধে করনীয় বিভিন্ন কর্মসূচি। তেমনি কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় ও চলছে এ ভাইরাস প্রতিরোধের বিভিন্ন কর্মসূচি। প্রবাস ফেরতদের হোমকোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা, বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার, স্বেচ্ছাসেবক দের নির্দেশনা দেওয়া, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলা, নাগরিকদের ঘরে থাকা, প্রয়োজন ছাড়া বের না হওয়া, থেকে শুরু করে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেন আর হাট, মাঠ ঘাট, বিরামহীন ভাবে প্রত্যক্ষ, পরোক্ষ ভাবে নিজেকে বিলিয়ে দিতে দেখা গেছে হোমনা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা তাপ্তি চাকমা কে। অব্যাহত কর্মসূচি, ঘর বন্দী অসহায় খেটে খাওয়া মানুষদের কাছে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন ঘরে ঘরে গিয়ে। যা যথেষ্ট দায়িত্বশীল ও মানবিক কর্মকর্তা হিসেবে স্থানীয়দের কাছে প্রশংসা কুড়িয়েছে। কেউ কেউ তাকে “মানবিক তাপ্তি চাকমা ” আখ্যায়িত করেছেন। সম্প্রতি এক বিসিএস ক্যাডারের বৃদ্ধদের সাথে অশালীন আচরণ করার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ায় শুরু হয় মাঠ প্রশাসনের প্রতি ঢালাও সমালোচনা ও নিন্দা। প্রত্যেক শ্রেনী পেশার মধ্যে ভালো মন্দ আছে, থাকবে, তাই বলে তাপ্তি চাকমারা যেন হারিয়ে না যায়। মিডিয়া ও সচেতন নাগরিক সমাজ নিন্দনীয় কাজকে যেমন নিন্দা জানিয়ে অভিযুক্তকে শাস্তির আওতায় এনেছেন পাশাপাশি তাপ্তি চাকমাদের নিরলস ভালো কাজের সাধুবাদ জানিয়ে পুরুস্কৃত করা ও দায়িত্বের মধ্যে পরে যায়। এই মহা দূর্যোগের মধ্যে যারা পাশে থাকবে তারাইতো প্রকৃত মানুষ। কে বাচি কে মরি জানিনা থেকে যাবে এই দূর্যোগের মধ্যে কার কি ভুমিকা। হোমনার পুলিশ প্রশাসন, স্বেচ্ছাসেবক, গণমাধ্যম কর্মীদের দায়িত্বশীলতা ও খুবই প্রশংসনীয়। তাপ্তি চাকমা আজকে পর্যন্ত জনপ্রতি নিধি, সুশীল সমাজ, পুলিশ প্রশাসন সহ এই মহা দূর্যোগের মধ্যে একসাথে করে মোকাবিলা করতে যতেষ্ট দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়েছেন ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। সচেতন নাগরিক সমাজ চায় মাঠ প্রশাসনে এমন মানবিক তাপ্তি চাকমারা যেন যুগ যুগ মানুষের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দেয়। তারা যেন মানুষের মাঝে বেচে থাকে হারিয়ে না যায়।

নিউজ টি ভালো লাগলে সেয়ার করার অনুরোধ করছি।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button