অন্যান্য

নারীদের জন্য কোভিড-১৯ টিকাদান সচেতনতা বিষয়ক ক্যাম্পেইন চালু করলো ইউএন উইমেন

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,বিন্দুবাংলা টিভি. কম,
নিজস্ব প্রতিবেদক।।

জাতিসংঘের লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ক সংস্থা ইউএন উইমেন সম্প্রতি দেশের গ্রাম ও মফস্বল অঞ্চলে বসবাসকারী নারীদের জন্য কোভিড-১৯ টিকাদান প্রসঙ্গে সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন চালু করেছে। টিকার ব্যাপারে বিভ্রান্তি দূর করা এবং তাদেরকে টিকা নিতে উৎসাহিত করাই এই আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য।

গ্রাম ও মফস্বল শহরে অনেকে, বিশেষ করে নারীরা এখনও টিকা নিতে দ্বিধা বোধ করেন। টিকার ব্যাপারে প্রচলিত বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণা, সচেতনতার অভাব, ইন্টারনেট বা স্মার্টফোনের সীমিত সুযোগের কারণে অনেকেই টিকা নেওয়া থেকে নিজেকে বিরত রাখছেন। এই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটিয়ে সকলকে, বিশেষত নারীদের টিকা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণে অনুপ্রাণিত করা এবং তাদের টিকার আওতায় আনার লক্ষ্যে ইউএন উইমেন তাদের টিকা বিষয়ক সচেতনতামূলক কার্যক্রম শুরু করেছে।
ইউ এন উইমেনের ন্যাশনাল ইয়ুথ জেন্ডার অ্যাকটিভিস্ট সাদিয়া আফসানা নিনির নেতৃত্বে ২৫ জন তরুন স্বেচ্ছাসেবী চাঁদপুর ও কুমিল্লা জেলায় এই ক্যাম্পেইন পরিচালনা করবে।

স্থানীয় প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা এবং সমন্বয়ের মাধ্যমে, কুমিল্লা ও চাঁদপুর জেলার ২টি নির্বাচিত উপজেলায় ৫টি গ্রাম এবং ১টি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইতোমধ্যেই ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে।ক্যাম্পেইনের কার্যক্রমের আওতায়, তরুন স্বেচ্ছাসেবীরা ট্যাব ও ইন্টারনেট ব্যবহার করে উল্লেখিত এলাকাগুলোর বাসিন্দাদের সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে সাহায্য করবে।

ইউ এন উইমেনকে ধন্যবাদ জানিয়ে, আফসানা নিনি বলেন, আমার কমিউনিটির অনেক নারীরই ইন্টারনেট বা স্মার্টফোনের অ্যাক্সেস নেই। স্থানীয় সাইবার ক্যাফে বা মোবাইল/কম্পিটারেরে দোকানে জনপ্রতি মানুষের ভ্যাক্সিন নিবন্ধন ২০ টাকা করে। ৫ জনের পরিবারের নিবন্ধনে খরচ হয়ে যায় ১০০ টাকা। এই কারনেও অনেকে নিবন্ধন করেননি। আমরা যদি বিনামূল্যে এই মানুষগুলোকে নিবন্ধন করে দিতে পারি, তারা অন্তত ভ্যাক্সিন নিতে পারবেন।

আজ কুমিল্লা জেলায় ক্যাম্পেইনটি চালু হয়ে গিয়েছে সেপ্টেম্বর ২৭ থেকে। ২৭-২৮ সেপ্টেম্বর দেবিদ্বার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এর প্রথম ধাপ এবং একই উপজেলার শিবনগর গ্রামে ২৯ সেপ্টেম্বর এর দ্বিতীয় ধাপ অনুষ্ঠিত হবে।

ইউ এন উইমেনের কো-অর্ডিনেশন ও পার্টনারশিপ অফিসার পূণ্যা ইসলাম বলেন, “যেসকল নারীদের কোভিড-১৯ সংক্রান্ত তথ্য ও সেবা পাওয়ার সুযোগ সীমি্ত, তাদের কাছে পৌঁছাতে, তরুন স্বেচ্ছাসেবীদের এই পদক্ষেপ বিশেষ ভূমিকা রাখবে। আমাদের ন্যাশনাল ইয়ুথ জেন্ডার অ্যাক্টিভিস্ট আফসানার মত সকল তরুণ, যারা একটি সুন্দর ও সমতার সমাজ তৈরীর প্রচেষ্টায় কাজ করে যাচ্ছে, তাদের পাশে দাঁড়াতে পেরে আমরা গর্বিত।’

ইতোপূর্বে, ২১ সেপ্টেম্বর চাঁদপুর জেলায় ক্যাম্পেইনটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। শাহরাস্তি উপজেলার বারনাইয়া ও শিবপুর গ্রামে যথাক্রমে ২১ ও ২২ সেপ্টেম্বর সচেতনতামূলক সেশন অনুষ্ঠিত হয়। একই উপজেলার লাকসাম ও লক্ষ্মীপুর গ্রামে এই প্রচারণা চালানো হয় গত ২৩ সেপ্টেম্বর।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button