সারাদেশ

গজারিয়ায় চমৎকার পরিবেশে গড়ে উঠেছে সুন্দরবন এগ্রো ফার্ম।

১৩  জুলাই ২০২১, বিন্দুবাংলা টিভি. কম,

গজারিয়া প্রতিনিধিঃ মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার জামালদী বাস-স্ট্যান্ডে নেমে এসডি খান সড়ক হয়ে হোসেন্দী ইউনিয়নে ছয় নং ওর্য়াডে অত্যান্ত চমৎকার পরিবেশে গড়ে ওঠেছে সুন্দরবন এগ্রো ফার্ম।

খোঁজ নিয়ে জানা যায় ফার্মটির মালিক স্থানীয় মেম্বার আলমগীর হোসেন। দেখা যায় আলমগীর হোসেন সচ্ছতার সাথে নিজের বাড়িতেই গড়ে তুলেছেন ফার্মটি। সেই সাথে ফার্মে নিশ্চিত করেছেন অন্য দশ জনের কর্মসংস্থানও।

শ্রমিকরা জানায় আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে তাদের দিন রাত কাটছে ব্যস্ততায়। এই ফার্মে প্রায় শতাধিক গরু সহ দশটির মত মহিষ সর্ম্পূন্ন গৃহপালিত উপায়ে তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে যত্নআত্তি করে প্রস্তুত করেছেন আগামী পবিত্র ঈদুল আযহায় কুরবানীর পবিত্র পশু হিসেবে বিক্রির জন্য।

ফার্মে নিযুক্ত শ্রমিকার তাদের সযত্নে পালিত পশুদের দিয়েছেন সুন্দর সুন্দর নাম পাকিস্থানী বাবু, কালা আদর, লাল শাহী সহ ফার্মে রয়েছে বিচিত্র নামের পশু। যা শ্রমিকদের ভালবাসা বহিঃপ্রকাশ বলেই মনে করছেন ক্রেতারা।

সুন্দরবন এগ্রো ফার্মে মালিক ও স্থানীয় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন বলেন দীর্ঘ দিন যাবৎ গরু মোটা তাজা করন এই ব্যবসায়ে সাথে সম্পৃক্তার সূত্র ধরেই এই ফার্ম গড়ে তুলতে আগ্রহী হই। তিনটি গরু দিয়ে শুরু করা ব্যবসায় আজ আমার ছোট বড় মিলিয়ে ফার্মে প্রায় শতাধিক গরু রয়েছে। আমার ফার্মে যেকোন প্রকার কারসাজি ব্যাতিরেখে গৃহপালিত উপায়ে গরু মোটা তাজা করছি দীর্ঘ বছর যাবৎ। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে পশু কেনা বেচা করছি। তবে চলমান লক ডাউন ও হাট ব্যবস্থাপনা নিয়ে লোকসানের সংশয়ে রয়েছি।

সরেজমিনে ফার্মটি ঘুরে দেখা যায় সর্ম্পূন্ন প্রাকৃতিক উপায়ে পশু পালনের আর্দশ চিত্র বাস্তবায়ন হচ্ছে এখানে। জীবাণু মুক্ত পরিবেশে প্রস্তুত হচ্ছে রোগ বালাই মুক্ত গৃহপালিত পশু।

স্থানীয় সাংবাদিক মহিউদ্দিন আহম্মদ সরেজমিনে বলেন সুন্দরবন এগ্রো ফার্মের মালিক আলমগীর হোসেন তার ওর্য়াডের বর্তমান মেম্বার। অত্যান্ত সচ্ছতার সাথে দীর্ঘ দিন পশু পালন ও মোটা তাজা করন ব্যবসায়ে সম্পৃক্ত থাকায় বিশ্বাস ও আস্থা কুড়িয়েছে এলাকার সকলের। তার ফার্মে আমার দেখা মতে পরিষ্কার পরিছন্ন পরিবেশে পশু পাতিল হচ্ছে। এখানে এসে ফার্ম কর্তৃপক্ষ সাথে কথা বলে যতদুর জানলাম তাতে মনে হচ্ছে এখান থেকে কুরবানির পশু ক্রয়ে দাম মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে। যা মুলত সুলভ মূল্যেই পাওয়া যাচ্ছে এমনটাই বলা যেতে পারে।

চলমান করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় সারাদেশে ন্যায় গজারিয়ায় চলছে লকডাউন। এমতবস্থায় হাট বসা নিয়ে রয়েছে খামারী ও জন সাধারনে মাঝে সংশয়। ঘর বন্ধি এই বিরূপ পরিস্থিতে থাকতে হবে সর্তক ও নিরাপদ। আসন্ন পবিত্র ঈদ উল আযহায় কুরবানির দেয়ার জন্য আপনার পশু ক্রয়ের আর্দশ স্থান হতে পারে সুন্দরবন এগ্রো ফার্ম। গরু ক্রয় বড় কথা নয় ফার্মটি পরিদর্শনে আপনিও নিমন্ত্রিত এমনটাই জানিয়েছেন ফার্মে মালিক আলমগীর হোসেন মেম্বার।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button