সারাদেশ

ইসলামপুরে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজ নিলেন ইউএনও 

১৯ জানুয়ারী ২০২১, বিন্দুবাংলা টিভি. কম,শহিদুল ইসলাম কাজল, জামালপুর : জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজ-খবর নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  (ইউএনও) এস. এম. মাজহারুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে তিনি উপজেলার চরগোয়ালিনী ইউনিয়নের ডিগ্রিচর পশ্চিমপাড়াস্থ অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রতিস্ত মমতা বেগমের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে পরিবারের খোঁজ-খবর নেন।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ সরকার, ইউপি সদস্য শাহ্ জামাল, রাশেদুজ্জামান রাসেদ, কিতাব আলী, ইউপি সচিব আবু হানিফ, গ্রাম আদালতের সমন্বয়কারী নাজনীন আক্তার, আওয়ামী লীগ নেতা মুছা শেখ প্রমুখ। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে যাবতীয় সহযোগিতার আশ্বাস দেন ইউএনও। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে নগদ অর্থ দান করেন ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ সরকার। পরে ইউএনও চরগোয়ালিনী ইউপি কার্যালয় পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি নাগরিক সেবার বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।
জানা যায়, মঙ্গলবার ভোর রাতে ওই এলাকার
মৃত মজিবর নাপিতের স্ত্রী মমতা বেগমের ঘর থেকে বৈদ্যুতিক সট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহ জামাল জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে তিনি উপস্থিত হয়ে প্রাণপণ চেষ্টা চালান আগুন নিভাতে। খবর দেন ফায়ার সার্ভিসে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের মেলান্দহ ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনে। কিন্তু ইতোমধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এতে মমতা বেগম ও তার ছেলে মুনতাজের টিনসেট ঘর, আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র আগুনে পুড়ে ভূষ্মীভূত হয়।
ইউপি সদস্য শাহ্ জামাল ও স্থানীয়রা জানান, মমতা বেগম ভিক্ষা করে সংসার চালিয়ে আসছে। আর তার ছেলে মুনতাজ দিনমজুর কেটে সংসারের ব্যয় মিটিয়ে আসছে। অগ্নিকাণ্ডে ভিক্ষুক মমতা বেগমের (৫৫) শরীর আগুনে পুড়ে যায় প্রায় ৫০ শতাংশ। গুরুতর অবস্থায় তাকে মেলান্দহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা তাকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button