আইন-আদালত

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ: রিমান্ড শেষে কারাগারে এএসআই রায়হান

স্কুলছাত্রী গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি রংপুর মেট্রোপলিটন  ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলামকে ৫ দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার (৮ নভেম্বর) বিকেলে আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করায় তাকে কারাগারে পাঠানোর  এই  রংপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাহাঙ্গীর আলম।

এর আগে, দুপুর আড়াইটার দিকে পুলিশি পাহারায় রায়হানুল ইসলামকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করলে আদালতে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত,  গত ৪ নভেম্বর রায়হানুল ইসলামের ৫ দিনের রিমান্ড মজ্ঞুর করেন আদালত।

এ ব্যাপারে পুশিল ব‌্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন্স (পিবিআই)-এর  এসপি জাকির হোসেন জানান, রিমান্ডে থাকার সময় রায়হান গুরুত্বপুর্ণ তথ্য দিয়েছেন।  এছাড়া, ভিকটিম নিজেও ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে রায়হানের বিরুদ্ধে জবানবন্দি দিয়েছেন।

উল্লেখ‌্য, মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, রংপুরের হারাগাছ এলাকার এক নবম শ্রেণির  ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন ডিবির এএসআই রায়হানুল ইসলাম।  সম্পর্কের সূত্র ধরে চলতি বছরের ২৪ সকালে ওই কিশোরীকে কেদারের পুল এলাকার শহিদুল্লাহ মিয়ার বাড়ির এক ভাড়াটিয়ার ঘরে ডেকে নেন রায়হানুল। সেখানে একই দিন রাতে রায়হানুল ও তার সহযোগীরা ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন।

এ ঘটনায়  ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রায়হানুল ইসলাম রাজুর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ব‌্যক্তিদের আসামি করে হারাগাছ থানায় মামলা করেন। এরপর মামলা তদন্তের জন‌্য পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়।  এই পর্যন্ত রায়হানুলসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button