অপরাধ

মেঘনায় মহিউদ্দিন হত্যাকান্ড :  স্ত্রী ও তিন প্রতিবন্ধী সন্তানের আহাজারিতে মূর্ছা খাচ্ছে এলাকাবাসী

১৩ নভেম্বর ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, এম এইচ বিপ্লব সিকদার :     পেশায় একজন পল্লি চিকিৎসক। গৃহস্থালী আর পল্লি চিকিৎসক হয়ে যা আয় করতেন তা দিয়েই চলতো সংসার। মহিউদ্দিন চন্দনপুর ইউনিয়ন এর শিবনগর গ্রাম সহ      এলাকার একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে পরিচিত, বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন আজীবন। তিনি স্ত্রী ও ৪ সন্তানের জনক। দুটি মেয়ে ও একটি ছেলে জন্ম থেকেই প্রতিবন্ধী। মাসুম (৩৫)রত্না (২৩) তানিয়া (২২), এই ৩ জনই প্রতিবন্ধি,,,,,আর এক সন্তান   কিছুটা ভালো মেহেদী। খুব কষ্টকর জীবন যাপন করতেন মহিউদ্দিন। পরিবারে একমাত্র কর্মক্ষম মহিউদ্দিন কে জমি সংক্রান্ত বিষয় ইউপি চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ মাষ্টার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বৃহস্পতিবার  শালিস চলাকালীন প্রতিপক্ষ লুৎফর বাহিনী পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে আকষ্মিক মহিউদ্দিন সহ তার পরিবারের উপর হামলা করে মহিউদ্দিন সহ ৫ জন কে আহত করে। পরে মহিউদ্দিনের মৃত্যু ঘটে। খবর পেয়ে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো: ফজলুল করিম ও মেঘনা থানা অফিসার ইনচার্জ আবদুল মজিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন লুৎফর এর ব্যবহৃত গাড়ি ও ড্রাইভার সহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ। আব্দুল মজিদ এই প্রতিবেদককে আজ শুক্রবার  বলেন প্রাথমিক ভাবে আমরা যা দেখেছি কেউ তাকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি তবে অভিযোগ আসলে মামলা নেওয়া হবে।              এদিকে বাবাকে মেরে ফেলেছে প্রতিবন্ধী সন্তান গুলোর আহাজারিতে মূর্ছা খাচ্ছে এলাকাবাসী। মানুষের ঢ্ল নেমেছে মহিউদ্দিনের বাড়িতে। পুরো এলাকা জোরে শোকের মাতম। তিন প্রতিবন্ধী  সন্তানের কি হবে কি ভাবে চলবে  সংসার এ প্রশ্ন সত্রুমিত্র সকলের। ছল ছল তাকিয়ে আছে, চোখের পানি শেষ হচ্ছে না মহিউদ্দিনের স্ত্রীর, বাকরুদ্ধ পরিবার।  শুক্রবার বিকেলে জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হয় মহিউদ্দিনের।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button