সারাদেশ

হোমনা রামকৃষ্ণপুরে তরুণ সমাজ সেবক অাল কাইয়ুম মোল্লার নেতৃত্বে জাতীয় শোক দিবস পালিত।

১৬ আগষ্ট ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম,
সৈয়দ অানোয়ার,হোমনা,কুমিল্লা।
হোমনার রামকৃষ্ণপুর আড়ালিয়ায় সর্বজন শ্রদ্দেয় মরহুম শাকের হোসেন (শুক্কুর মোল্লার) নাতী তরুন সমাজসেবক অাওয়ামী লীগ নেতা অাল কাইয়ুম মোল্লার উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত।

গতকাল কুমিল্লার হোমনা উপজেলার অন্তর্গত চান্দেরচর ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর (আড়ালিয়া) বাজার মসজিদের সামনের মাঠ প্রাঙ্গনে।
১৫’আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫’তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে তরুণ সমাজসেবক, রাজনীতিবিদ ও বিশিষ্ঠ আওয়ামী লীগ নেতা আল কায়্যুম মোল্লার উদ্যোগে। যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে শোক দিবস পালিত হয়।

উপজেলা ব্যপি শোক মঞ্চ পরিদর্শনের অংশ হিসেবে আড়ালিয়ায় আল কায়্যুম মোল্লার আয়োজনে শোক মঞ্চে উপস্থিত হয়। হোমনা-তিতাস আসনের সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ তাঁর বক্তব্যের শুরুতে জনগনের পক্ষ থেকে আল কায়্যুম মোল্লাকে ধন্যবাদ জানিয়ে। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। এসময় তিনি সকলকে শোকের মাসের শপথ নিয়ে, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী,মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের বিরুদ্ধে এক হয় এবং এলাকার উন্নয়নে কাজ করার প্রত্যয় এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন অামি অাপনাদের সাথে অাছি।

তরুণ সমাজসেবক রাজনীতিবিদ আল কাইয়ুম মোল্লা তার বক্তব্যে বলেন,আমার ইউনিয়নের রাস্তা-ঘাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাট-বাজার ও নাগরিক জীবনের মানোন্নয়নে আমি কাজ করে যাব। চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, মাদক, ইভটিজিং সহ অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই অামি।
দলিত,শোষিত-বঞ্চিত মানুষের কথা শুনতে চাই,চাই সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের সহযোগিতায় চান্দেরচর ইউনিয়নকে একটি আদর্শ ইউনিয়ন হিসেবে গড়তে। আমার ছোট বেলা থেকে স্বপ্ন,যেন আমার ইউনিয়ন অন্যদের জন্য আদর্শের রোল মডেল হয়। তাই সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে, গণতন্ত্রর নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের জননী শেখ হাসিনা দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আমাদের নেত্রী বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে একটি উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন। এই উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

শোক দিবসের অনুষ্ঠান সূচির মধ্যে ছিল,জাতীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন, পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত,অালোচনা সভা, শোক র্্যালী,কাঙ্গালী ভোজ, শিশুতোষ আয়োজনসহ বিভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে শোক দিবস পালিত হয়।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button