মতামত

হোমনার দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয় এর ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে শুভেচ্ছা জানালেন প্রতিষ্ঠাতা সাবেক ইউএনও আজগর আলী।

২২ এপ্রিল ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, সৈয়দ আনোয়ার :

আমাদের হোমনা উপজেলার সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আজগর আলী। যিনি তাঁর কর্মদক্ষতায় হোমনা উপজেলার সব শ্রেণী-পেশার মানুষের নিকট অতি প্রিয় হয়ে উঠেছিলেন। রাতদিন বিরামহীন কাজ করে উপজেলার চিত্রটাই বদলে দিয়েছিলেন অনেকাংশে। তার অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে হোমনা উপজেলার ঘাঘুটিয়া ইউনিয়নে ২০১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় “দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয়চ্ – যেখানে ইতোপূর্বে ছিলনা কোন মাধ্যমিক বিদ্যালয়!!! বিদ্যালয়টির ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে তার আবেগঘন ভালোবাসা মিশ্রিত শুভেচ্ছা বাণী পোস্ট করেন তাঁর ভেরিফাইডকৃত ফেসবুক আইডিতে।
নিচে হুবহু তুলে ধরা হলো হোমনা উপজেলার সাবেক ইউএনও আজগর আলী র হৃদয় ছোঁয়া শুভেচ্ছা বাণী।

১ম প্রততিষ্ঠা বার্ষিকী দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয়,ঘাঘুটিয়া,হোমনা,কুমিল্লা!

প্রায় ১ বছর কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে উল্লেখযোগ্য দুইটি কাজ করেছিলাম-

১। উপজেলার একেবারে প্রত্যন্ত ও দুর্গম একটি গ্রাম তাতুয়াকান্দি- যেখানে ইতোপূর্বে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছিলনা- ছিলনা যাতায়াতের কোন সুব্যবস্থা!!! ছোট ছোট কোমলমতি শিক্ষার্থীদের কখনো পায়ে হেঁটে- কখনো সাঁতরিয়ে বিল পার হয়ে অনেক দূরের বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতে যেতে হতো!!! বৈশাখি টিভি ও এটিএন নিউজে এ নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রচারিত হওয়ার পর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ২৪ ঘন্টার মধ্যে সেখানে তাতুয়াকান্দি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নামে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করি- যেটি এখন সফলতার সাথে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক পরিচালিত হচ্ছে!!!

তবে আজ এটি নিয়ে লিখবোনা- আজ লিখবো ২য়টি নিয়ে- কারণ ২য়টিথর যে গতকাল (২০.০৪.২০২০) ছিল ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী!!!!

২। উপজেলার উল্লেখযোগ্য একটি ইউনিয়ন ঘাঘুটিয়া- কিন্তু সেখানে কোন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছিলনা!!! সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের নিকট হতে এ তথ্য জানার পর পরই সেখানে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিই, নিজে গিয়ে খুঁজে বের করি ১নং খাস খতিয়ানের এক খন্ড খাস জমি- যা ছিল অর্ধেক পরিত্যক্ত ডোবা ও বাকি অর্ধেকে অবৈধ দখলে থাকা একটি স্থানীয় ক্লাব! ডিসি স্যার এর অনুমতি নিয়ে উক্ত খাস জমিতেই একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিই! স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় ও অন্যান্যদেরকে নিয়ে টি আর- কাবিখা দিয়ে পরিত্যক্ত ডোবাকে মাটি ও বালি দিয়ে ভরাট করি এবং অবৈধ দখলদার সরিয়ে ও গাছপালা কেটে পরিত্যক্ত জায়গাকে বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য উপযুক্ত করে প্রস্তুত করি! চেয়ারম্যানকে দিয়ে উক্ত খাস জায়গা বিদ্যালয়ের নামে অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত নীতিমালা অনুযায়ী সেলামীর বিনিময়ে বন্দোবস্ত প্রদানের জন্য জেলা প্রশাসক, কুমিল্লা বরাবর একটি আবেদন প্রেরণের ব্যবস্থা করি। এরপর টি-আর, কাবিখা, মানবিক সহায়তা তহবিল, উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন তহবিল-বরাদ্দ ও স্থানীয় চেয়ারম্যান ও অন্যান্যদের আর্থিক সহযোগিতায় খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দাঁড় করাই নতুন একটি কাঠামো, নতুন একটি স্বপ্ন-
“দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয়!!!

গত বছর এ দিনে(২০.০৪.২০১৯) কুমিল্লা জেলার মান্যবর জেলা প্রশাসক জনাব মো: আবুল ফজল মীর স্যার এসে বিদ্যালয়টির ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন এবং শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন!!! গতকাল ২০ শে এপ্রিল ছিল বিদালয়টির ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী!!!
উদ্বোধনের পর দ্রুততম সময়ের মধ্যে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে সম্পূর্ন ন্যায় ও নিরপেক্ষতা বজায় রেখে ১ জন প্রধান শিক্ষক ও ১০ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ করি!!! উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে সভাপতি করে গঠন করি বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ! এরপর বদলীর সুবাদে চলে যাই নতুন কর্মস্থলে!!! পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ ও প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ মিলে ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ঘুরে নবনির্মিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জন্য ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা থেকে শুরু করে বাকী কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যায়। চলতি ২০২০ সালের ১ জানুয়ারী নতুন বছরের প্রথম দিন নতুন বই বিতরণ উৎসব এর মাধ্যমে বিদ্যালয়টির নবযাত্রা শুরু করেন বর্তমান সুযোগ্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব তাপ্তি চাকমা!!! দূর থেকে দেখে বুকটা গর্বে ফুলে উঠে!!! শূন্য থেকে যাত্রা শুরু করা দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয়ে আজ ১ম বছরেই ২৩০ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়মিত ক্লাশ করছে!!! যে ইউনিয়নে কোন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছিলনা- সে ইউনিয়নের আলো-বাতাস আজ দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের কলকাকলীতে মুখরিত!!!!!

এ স্বপ্নযাত্রায় যারা আমাকে আন্তরিকভাবে শারীরিক ও মানসিক পরিশ্রম করে সমর্থন ও সাহস যুগিয়ে পাশে থেকে সহযোগিতা করেছেন- তারা হলেন হোমনা উপজেলার সাবেক সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনাব সাজেদুল ইসলাম, বর্তমান সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনাব তানিয়া ভুইয়া, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জনাব কাজি রুহুল আমিন, সাবেক উপজেলা প্রকৌশলী জনাব জহিরুল হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জনাব নাহিদ আহম্মেদ, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জনাব কারিশমা জাকসি, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা জনাব স্বপন চন্দ্র বর্মন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা জনাব মোতাহার হোসেন, ডিজিএম পল্লী বিদ্যুৎ জনাব আজিজুর রহমান সরকার, সাবেক উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জনাব জায়েদুল হোসেন চৌধুরী, সাবেক থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব ফজলে রাব্বী, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জনাব রুহুল আমিন, সাবেক খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব গোলাম মোস্তফা, খাদ্য পরিদর্শক জনাব আব্দুর রহিম মিজি, সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা জনাব সাহিদুল হক দেওয়ান, সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জনাব সোহাগ ভট্টাচার্য ও খাদিজা আক্তার, উপজেলা বন কর্মকর্তা জনাব ফজলে রাব্বী, হোমনা পৌর মেয়র জনাব নজরুল ইসলাম, ঘাঘুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব মফিজুল ইসলাম গনি, উপজেলা টেকনিশিয়ান সাইদুল, হোমনা উপজেলার সকল সাংবাদিকবৃন্দ, হোমনা উপজেলা প্রশাসন এর ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর সকল কর্মচারীবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের সকল জনসাধারণ এবং আরও অনেক সুধীজন যাদের নাম হয়তো এ মুহূর্তে মনে পড়ছেনা- সবাইকেই অনেক অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা!!!
বিশেষ কৃতজ্ঞতা বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব তাপ্তি চাকমাকে- যে যোগদান করার পর থেকেই নবগঠিত বিদ্যালয়টিকে সম্পূর্ণ আপন করে নিয়ে নিজস্ব আন্তরিকতা ও চেষ্টার মাধ্যমে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, যার চেষ্টার ফসল আজ ২৩০ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে বিদ্যালয়ের অদম্য পথচলা!!!

আজ দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয় এর ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীলগ্নে বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক জনাব হাবিবুর রহমান সহ সকল সহকারী শিক্ষকবৃন্দ, সকল ছাত্র-ছাত্রী, হোমনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব তাপ্তি চাকমা, উক্ত ঘাঘুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান জনাব মফিজুল ইসলাম গনি, বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ এর সম্মানিত সকল সদস্যবৃন্দ, উক্ত ইউনিয়নের সকল জনসাধারণসহ সবাইকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও অনেক অনেক শুভেচ্ছা !!!

#জয়তু দড়িচর উচ্চ বিদ্যালয়!!!

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button