সারাদেশ

করোনা :বহিরাগতদের ঠেকাতে হোমনা – মেঘনায় নৌপথে টহল জোরদার করলেন এএসপি মো. ফজলুল করিম

১৪ এপ্রিল ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম,
সৈয়দ আনোয়ার হোমনা :
মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে হোমনা ও মেঘনা উপজেলার জনসাধারণকে বাঁচাতে।
দিনরাত সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন (হোমনা-মেঘনা সার্কেল) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. ফজলুল করিমের নেতৃত্বে দুটি উপজেলার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ পুলিশ বাহিনী।

মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে, রাতদিন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন (হোমনা-মেঘনার সার্কেল) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো.ফজলুল করিম’র নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনী।

ঘরের বাইরে থাকা সাধারণ মানুষকে ঘরে ফেরানো, ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টি, কোয়ারান্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের বাড়িতে উপস্থিত হয় খোঁজ-খবর নেয়া। ঢাকা নারায়ণগঞ্জ সহ দেশের অন্য জেলা থেকে আগত ব্যক্তিদের দ্রুত কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা, ও আইনশৃংখলা উন্নয়নে দিনরাতের ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৪ থেকে ১৬ ঘন্টা হোমনা ও মেঘনা উপজেলার হাট-বাজার পথে-প্রান্তরে কাটাচ্ছেন এএসপি মো. ফজলুল করিম সহ পুলিশ বাহিনী।

সংক্রমণ প্রতিরোধে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ লকডাউন ঘোষণা করা হয়। তুলনামূলক অাক্রান্তের সংখাও সেখানে অনেক বেশী। পরিস্থিতি মোকাবেলায় ইতিমধ্যে কুমিল্লা জেলাকে “লকডাউন” ঘোষণা করলেও
ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ কর্মরত হোমনা ও মেঘনা উপজেলার বাসিন্দারা। সড়ক পথে আসতে ব্যর্থ হয়ে নৌপথে ঢোকার চেষ্টা করছেন এলাকাগুলোতে। ফলে নৌপথ প্রবেশ প্রতিরোধে আজ থেকে মেঘনা নদীতে মেঘনা থানা পুলিশের দুটি টহল যান সহ একটি নৌ-পুলিশের টহল যান আজ থেকে মেঘনা নদী অববাহিকায় টহল দেয়া শুরু করেছেন।

এ ব্যাপারে হোমনা মেঘনা সার্কেল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. ফজলুল করিম জানান, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের লকডাউন থেকে পালিয়ে আসা ব্যক্তিরা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিবে। তাই তারা যেন কোনভাবেই হোমনা মেঘনা উপজেলায় প্রবেশ না করতে পারে। সেই জন্য স্থল ও নৌ পথে টহল জোরদার করা হয়েছে। এবং যারা ইতিমধ্যে বিভিন্ন উপায় এলাকায় চলে এসছেন তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে আমরা সক্ষম হয়েছি।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button