সারাদেশ

মেঘনায় ১৫ ০ অসহায় পরিবার কে খাদ্য সামগ্রী দিলেন প্রবাসী মোঃজাহাঙ্গীর আলম

৩০ মার্চ ২০২০, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, নাজিম উদ্দিন : দেশের এই ক্লান্তলগ্নে মানবতার এক উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন,
মেঘনা উপজেলার বড়কান্দা ইউনিয়নের মালয়েশিয়ান প্রবাসী মোঃজাহাঙ্গীর আলম। তিনি ১৫০+ অসহায় কর্মহীন পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী দিলেন। উপজেলার বড়কান্দা ইউনিয়নের জলারপাড় গ্রামের কৃতি সন্তান,মালয়েশিয়া প্রবাসী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ,
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এর উদ্যোগে নিজ অর্থায়নে বড়কান্দা গ্রামের গৃহবন্দী হয়ে থাকা গরিব-দুঃখী, অসহায়, দিনমজুর, হতদরিদ্র, প্রায় ১৫০এর ও বেশি পরিবারের মাঝে আজ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

থরে থরে সাজানো হয়েছে খাদ্য সমগ্রীর ব্যাগ।
একটি কিংবা দুটি নয়, ১৫০ এর অধিক ব্যাগ।
প্রতিটি ব্যাগে ভরা হয়েছে আলাদা আলাদা প্যাকেট। প্যাকেট গুলোয় আছে, চাল,মসুর ডাল, আলু, পেঁয়াজ, সয়াবিন তেল ইত্যাদি ।

আজ সোমবার সকাল থেকে প্রস্তুত করা হয় প্যাকেটগুলো।
তার পর বিকাল মেঘনা উপজেলার বড়কান্দা ইউনিয়নের বড়কান্দা গ্রামবাসী নিম্নবিত্তের পরিবার হাতে তুলে দেওয়া হয় প্যাকেটগুলো। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত নিম্নবিত্তের ১৫০ প্লাস পরিবারকে এ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সহযোগিতা দিল দেশ ও মানুষের কল্যাণে মোঃজাহাঙ্গীর আলম ।

এ সহায়তা কার্যক্রম যতদিন করোনামুক্ত না হবে, মেঘনায় ততদিন চলবে।
বিভিন্ন ব্যাক্তিদের ও বিভিন্ন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মেঘনায় এ কার্যক্রম চলমান ৷

পাশাপাশি জাহাঙ্গীর আলম বলেন,
আমি আসলে প্রচারের জন্য এরকম সহায়তা করছি না, আমি আমার মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে হতদরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি মাত্র,
তিনি আরো বলেন, আমার এ ক্ষুদ্র কাজটিকে দয়াকরে কেউ অন্য চোঁখে দেখবেন না ৷
#মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য ৷

মানুষই তো মানুষের বিপদেই এগিয়ে আসবে
তাই আসুন আমরা যারা ভালো অবস্থানে আছি,
আমরা যদি অসহায় খেটে খাওয়া মানুষগুলোর পাশে এসে দাঁড়াই,
তাহলে হয়তো আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনার মিশন সাকসে্স করতে পারব,
অবশেষে তিনি আরো বলেন,
আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন আমিও দেশবাসী সকলের জন্য দোয়া করছি,
যেন মহান আল্লাহ আমাদের সবাইকে এই মহামারী করোনার হাত থেকে রক্ষা করেন,
তিনি বলেন, আমি কথা দিচ্ছি এখন থেকে অসহায় মানুষদের পাশে সব সময় থাকব ইনশাআল্লাহ।

করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ, গরিব ও অসহায় মানুষ যারা দিন আনে দিন খায়।
করোনাভাইরাসের জন্য তাদের কাজ একদম কমে গেছে।
এ অবস্থায় আমার এই সামান্য অল্প সাহায্য সহযোগিতাই তাদের উপকৃত করবে।’

নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী সহযোগিতা পেয়ে আপ্লুত ও অভিভূত বড়কান্দা গ্রামের কর্মহীন মানুষ গুলো ৷

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button