সারাদেশ

মাটিরাঙ্গা থানা,অজ্ঞাত কঙ্কাল উদ্ধার আসামী গ্রেফতার

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বিন্দুবাংলা টিভি. কম, সোহাগ মজুমদার,      খগড়াছড়ি প্রতিনিধি:
রুপ কথার গল্পের মত অনেকটা,
  মাটিরাঙ্গা থানাধীন গোমতি এলাকা ০১/৮/১৯ ইং তারিখ  একটি অজ্ঞাতনা লাশের কংকাল পাওয়া যায়। এসআই/মোজাম্মেল হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্বে থানা একটি খুনের এজাহার দায়ের করিলে মাটিরাঙ্গা মামলা নং ০১, তারিখ- ০১/৮/১৯ ইং, ধারা ৩০২/২০১/৩৪ দঃবিঃ রুজু হয়। মামলাটি এসআই/ মোঃ মহিউদ্দিন আহামেদ তদন্ত করেন পরবতীতে পুলিশ পরিদশক(তদন্ত) মোহাম্মদ শাহনুর আলমকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় ।
জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব,মোঃআহমারউজ্জামান, জনাব,এমএম সালাউদ্দিন অতিরিক্তি পুলিশ সুপার(প্রশাসন ও অপরাধ)পুলিশ সুপার পদোন্নতি প্রাপ্ত, জনাব,মোহাম্মদ খোরশেদ আলম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মাটিরাঙ্গা সার্কেল,  জনাব, মোঃ সামসুদ্দীন ভুইয়া অফিসার ইনচাজ মাটিরাঙ্গা থানা মহোদয়ের সাবিক সহযোগিতা, মামলার তদন্তকারী অফিসার ও অন্যান্য অফিসারদের নিরলস চেষ্টায় তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে মামলার আসামী আব্দুল কাদেরকে ধৃত করতে সক্ষম হন। ১৩/৯/১৯ ইং তারিখ আসামী বিজ্ঞ আদালতে ফোঃকাঃবিঃ ১৬৪ ধারার জবান বন্দিতে নিজেকে খুনের সহিত জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।
          গল্পের কাহিনী যে ভাবে শুরু
আসামী আব্দুল কাদেরের ৫ম স্ত্রী মাইনুর বেগম(২৩)। মাইনুর বেগম এর   বাড়ী লক্ষীপুর জেলার কমলনগর থানা। মাইনুর বেগম চট্টগ্রাম গামেন্টসে চাকুরী করে চাকুরীর সুবাধে আব্দুল কাদেরের সাথে প্রেমের সম্পর্ক হয় এক পযায়ে বিয়ে। মাইনুর বেগমের বিয়ে হলেও মাইনুর বেগম পরিকীয়া জড়িত, এ নিয়ে ২ জনের সাথে চলে ঝগড়া বিবাধ ইহা ছাড়াও আব্দুল কাদের তার টাকা পয়সা মাইনুর বেগমের কাছে গচ্ছিত রাখে, মাইনুর বেগম তার কথিত প্রেমিক পুরুষকে দিয়ে দেওয়ার কারনে আরো জোড়ালো হয় সন্দেহ। গত রোজার ঈদের ৩ দিন পর মাটিরাঙ্গা থানা গোমতি এলাকা আব্দুল কাদেরের বোনের বাড়ীতে বউকে নিয়ে বেড়াতে আসে। আব্দুল কাদের তার বউকে পাহাড় দেখাতে নিয়ে  যায়  গহিন বনের ভিতর তারা সেখানে ২ জনে গল্প গুজব করে আব্দুল কাদের টাকার কথা মাইনুরকে জিজ্ঞেস করিলে ২ জনের মধ্যে শুরু হয় বিবাধ এক পর্যায় আব্দুল কাদের মাইনুর বেগমকে দা দিয়ে কোপাইয়া পেলে চলে যাায় পানছড়ি ৪নং বউয়ের বাড়ীতে চলে যায়।

সেখান থেকে মাটিরাঙ্গা পুলিশ পানচড়ি থানার পুলিশের সহযোগিতায় আসামিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: সামছুদ্দিন ভূইয়া বলেন আসামীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button