সারাদেশ

নুসরাত হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতারকৃত নেতারা এখনো পদে বহাল তবিয়তে।

 ২৮ এপ্রিল ২০১৯ ,
বিন্দুবাংলা টিভি. কম,
সৈয়দ কামাল,ফেনী থেকেঃফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকান্ডে জড়িত ওই উপজেলার গ্রেপ্তার হওয়া সরকার দলীয় প্রভাবশালী দুইনেতাকে এখনো দলথেকে বহিষ্কার না করায়, সোনাগাজী উপজেলা ব্যাপি জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।স্বপদে অদ্যাবধী বহালথাকা নুরসাত হত্যাকান্ডে জড়িত সরকার দলীয় প্রভাবশালী ওই দুইনেতার মধ্যে একজন হলেন, সোনাগাজী উপজেল আওয়ামীলীগের সভাপতি রুহল আমিন ও অপরজন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুল আলম।হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয় প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায়,ঘটনার পরপরই গ্রেপ্তার হয়ে ৫ দিনের রিমান্ড শেষ বর্তমানে এই মামলায় কারাগারে রয়েছে মাকসুদ এবং সম্প্রতি গ্রেপ্তার হওয়া রুহুল আমিন ও সমমেয়াদের রিমান্ড খেটে ২৬ এপ্রিল কারাগারে প্রেরিত হয়েছেন।
গ্রেপ্তার পরবর্তী রিমান্ড,রিমান্ড পরবর্তী কারাগারে থাকলে ও অদ্যাবধী ওই উপজেলার সরকার দলীয় প্রভাবশালী এই দুইনেতাকে এখনো দলথেকে বহিষ্কার না করায়,সোনাগাজী উপজেলার সাধারণ জনগণের মনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।উল্লেখ্য নুসরাত হত্যাকান্ডে জড়িত আসামীদের পক্ষে আইনি সহায়াতা প্রদান করায়, দলথেকে বহিষ্কার করা হয়েছে ফেনী সদর উপজেলাধীন কাজীরবাঘ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ওই ইউনিয়নটির বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান,এডভোকেট কাজী বুলবুল আহাম্মেদ সোহাগকে।
নুসরাত হত্যাকান্ডে জড়িতথাকা কারাবন্দী সোনাগাজীর প্রভাবশালী ওই দুইনেতা রুহুল আমিন ও মাকসুদকে দলথেকে বহিষ্কার করা হবে কিনা,এই বিষয় ফেনী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি,কম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান,জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফেনী সদর আসনের এমপি নিজাম উদ্দিন হাজারী দেশের বাহিরে থাকায় নাকি এই বিষয় এখনো কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।যার কারণে বহিষ্কারের বিষয় এই মুহুর্তে কিছু বলা যাচ্ছেনা বলেও জানান বি,কম।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button