সারাদেশ

অভিমান করে বাসাথকে পালিয়ে আসা দুই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের হাতথেকে রক্ষা করলো ছাগলনাইয়া থানা পুলিশ।

৩০ এপ্রিল ২০১৯
,বিন্দুবাংলা টিভি. কম,

সৈয়দ কামাল,ফেনী থেকে:অভিমান করে ফেনী জেলা শহরের ভাড়া বাসাথেকে পালিয়ে আসা দুই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের হাতথেকে বাঁছিয়েছে ছাগলনাইয়া থানা পুলিশ।এই সময় জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্ঠায় জড়িত থাকা দুই ধর্ষককে ও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে ২৮ এপ্রিল রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টারদিকে,ঘটনার বিবরণে জানাযায়,ফেনী শহরের বাসাথেকে ২৮ এপ্রিল রাত আনুমানিক সাড়ে ৮ টার সময় বাবুলের ও পাশের বাসার নাছিমা বেগমের স্কুল পড়ুয়া মেয়ে অভিমান করে বাসাথেকে পালিয়ে গিয়ে,সিএনজি অটোরিক্সা যোগে ছাগলনাইয়া পৌর শহরের সিএনজি স্ট্যান্ডে নেমে এদিক ওদিক বেপরোয়া ঘোরাঘুরি করতে থাকলে ধর্ষণ চেষ্ঠার দুই আসামী,ছাগলনাইয়া পৌরসভাধীন উত্তর মটুয়া গ্রামের,মোঃআবদুল মান্নানের পুত্র,রবিউল হক ওরফে সাদ্দাম (২৫) ও একি গ্রামের মোঃরুহুল আমিনের পুত্র,সাদ্দাম হোসেন (২৪)।মেয়ে দুটিকে কোথায় যাবে জিজ্ঞাস করলে তারা জানায়,তারা খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা যাবে।পালিয়ে আসা দুই স্কুল ছাত্রীর মধ্যে এক ছাত্রীর বড়ভাইয়ের শশুর বাড়ী মাটিঙ্গা।এতরাতে যে মাটিরাঙ্গা যাওয়া অসম্ভব বা ছাগলনাইয়া থেকে মাটিঙ্গার দূরত্ব কতটুকু এই বিষয় পালিয়ে আসা ওই মেয়ে দুটির বিন্দু মাত্র ধারণা ছিলোনা।মেয়ে দুটি যখন মাটিরাঙ্গা যাওয়ার কথা জানিয়েছে তখন ধর্ষণ চেষ্ঠার ওই দুই আসামী বুঝতে পারলো মেয়ে দুটি এই এলাকায় নতুন তাছাড়া উপযুক্ত দুটি মেয়ের সাথে যখন কেউ নেই,নিশ্চিত এরা ঘরথেকে পালিয়ে এসেছে।এমন সুযোগ পেয়ে মেয়ে দুটিকে ভুল ঠিকানায় নিয়ে ধর্ষণের চিন্তা মাথায় চেপে বসলো ওই দুই আসামীর।দুই সাদ্দাম মেয়ে দুটিকে মাটিরাঙ্গা পৌঁছেদিবে বলে স্ট্যান্ড থেকে একটি সিএনজি অটোরিক্সা ভাড়ায় নিয়ে ওই দুই স্কুল ছাত্রীকে সিএনজিতে তুলে,দুই সাদ্দাম তাদেরকে নিয়েযায় পৌরসভাধীন হিছাছরা স্কুল গেইটে।ওইখানে মেয়ে দুটিকে সিএনজি থেকে নামিয়ে স্কুলের বিতরের দিকে নিয়েযেতে চাইলে,মেয়ে দুটি বিতরের দিকে যেতে অস্বীকৃতি জানালে তখন আসামী দুই সাদ্দাম পকেটথেকে দুটি ব্লেট বেরকরে তাদেরকে জবাইকরে মেরে পেলার হুমকিদিয়ে,মেয়ে দুটিকে জোরকরে টেনে স্কুলের বারান্দায় নিয়েযায়।বিষয়টি স্কুলের সামনে দোকানে বসেথাকা স্থানীয় লোকজনের নজরে আসলে,সাথে সাথে এলাকার লোকজন স্কুলের বেতর প্রবেশকরে ধর্ষণের চেষ্ঠাকারী দুই সাদ্দামকে আটক করেন এবং ওই দুই ছাত্রীকে উদ্ধার করেন।

একপর্যায় এলাকাবাসীর কেউ একজন বিষয়টি জানিয়ে ছাগলনাইয়া থানায় ফোন করলে,তাৎক্ষণিক ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনর্চাজ এম এম মুর্শেদ পিপিএম থানার এএসআই জাকির হোসেন,এএসআই ফিরোজ আলম,এএসআই ফারুক হোসেন ও এএসআই মতিউরকে সাথে নিয়ে নিজে স্বশরীরে ঘটনাস্থলে এসে,রাত আনুমানিক পৌনে ১০ টারদিকে দুই ধর্ষণ চেষ্ঠাকারীকে গ্রেপ্তার করে ওই দুই স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়েযান।পরে ওসি দুই স্কুল ছাত্রীর অভিবাবকদের রাতেই থানায় ডেকে আনেন।দুই ছাত্রীর মধ্যে এক ছাত্রীর অভিবাবক বাবুল বাদী হয়ে,দুই ধর্ষণ চেষ্ঠাকারীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন।

দুই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের হাতথেকে উদ্ধার,দুই ধর্ষণ চেষ্ঠাকারীকে গ্রেপ্তার ও এই বিষয় ছাগলনাইয়া থানায় মামলা দায়ের হওয়াসহ বিষয় গুলি নিশ্চিত করেছেন,ছাগলনাইয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুদ্বীপ রায় পলা

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button